Saturday, March 26, 2016

ইসলাম পুরের ইতিহাস...



১৬০০-১৭০০ শতকের গোড়ার দিকে অত্র গ্রামে ব্রাম্মণ সমপ্রদায়ের বসবাস ছিল। ১৮০০ শতকের শুরুর দিকে মুসলমানগন এই গ্রামে বসতি স্থাপন করেন, তৎকালীন সময়ে এই গ্রামে কয়েকজন মুনশি বসবাস করতেন এবং তাদের প্রচেষ্টায় গ্রামের সাধারণ মুসলমানগন ধর্মের দিকে অগ্রসর হতে থাকেন, শুধু তাই নয়, ক্রমান্বয়ে মানুষ যখন ধর্মের দিকে অগ্রসর হতে থাকেন এমনি এক শুভক্ষণে মৌলভীবাজার মহকুমার ইটা সিংকাপন নিবাসী মাওলানা আব্দুল কাদির (ছানী) বাঙালী সহ ইটার মাওলানাগণ অত্র গ্রামে ঘন-ঘন যাতায়াত শুরু করেন এবং এই গ্রামের শতভাগ মানুষ মুসলিম হওয়ায়, উনারা মৌখিক ভাবে এই গ্রামের নাম ইসলাম পুর বলে নাম করণ করেন। ১৮৪৪ শতকে মানুষের প্রয়োজনের তাগিদে সবার সম্মতি ক্রমে এই গ্রামের পশ্চিম-পাড়ায় একটি জামে মসজিদ স্থাপন করা হয়, যার নাম দেওয়া হয় ইসলামপুর জামে মসজিদ। এখানে উল্লেখ্য যে সে সময়ে পার্শ্ববর্তী গ্রাম সৈয়দপুর ব্যতীত অন্য কোন গ্রামে মসজিদ ছিল না। 

সেই সময়ে গর্ব করার মত এই গ্রামের অনেক ইতিহাস-ঐতিহ্য রয়েছে তন্মধ্যে উল্লেখযযোগ্য, যখন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের পরিবর্তে সরপাঞ্ছ নির্বাচিত করা হত, তখন সরপাঞ্ছ ছিলেন এই গ্রামের মরহুম সুলতান উল্লাহ যিনি বেপারী নামে খুব বেশি পরিচিত ছিলেন। আরো গর্বের বিষয় হল যখন সৈয়দপুরের বড় মৌলভী জেলী মৌলভী ছাড়া আশ-পাশ গ্রামে কোন মাওলানা ছিলেন না, তখন এই গ্রামের মরহুম রোয়াইত উল্লাহ মুনশী সাহেবের বড় ছেলে মরহুম মাওলানা আব্দুল মান্নান সাহেব পুর্ব সিলেটের গোলাপগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী রানাপিং মাদ্রাসা থেকে কৃতিত্বের সাথে টাইটেল পাশ করেন। যিনি সারা জীবন ধর্মের তরে নিবেদিত ছিলেন, উনার জানাযার উপস্থিতি ও উনার সাগরেদদের বক্তব্যে প্রমাণিত হয়েছিল সেদিন।